ছাত্র ইউনিয়নকে ছাত্রলীগের পিটুনী, আহত ১০

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১০ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

ছাত্র ইউনিয়নকে ছাত্রলীগের পিটুনী, আহত ১০

চট্টগ্রাম ব্যুরো
🕐 ৮:৩৫ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২২

ছাত্র ইউনিয়নকে ছাত্রলীগের পিটুনী, আহত ১০

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে হামলা চালিয়ে ছাত্র ইউনিয়নের মানববন্ধন পণ্ড করে দিয়েছে ছাত্রলীগ ক্যাডাররা। এ হামলায় ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক-বর্তমান কয়েকজন নেতা ও সাধারণ শিক্ষার্থীসহ অন্তত ১০ জন আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে পাঁচজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার (১৩ আগস্ট) সকাল সোয়া ১১টার দিকে উপজেলার কানুনগোপাড়ায় স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনে এ হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ হামলার পর ধারণ করা ভিডিও ফুটেজ ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তবে বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুর রাজ্জাক কোনো ধরনের হামলা হয়নি বলে দাবি করেছেন। তিনি বলেন, ‘কলেজে অনিয়ম-দুর্নীতি নিয়ে ছাত্র ইউনিয়ন মানববন্ধন করছিল। সেখানে অনেক বহিরাগত ছিল। ছাত্রলীগের কথা হচ্ছে, মানববন্ধন করলে কলেজের শিক্ষার্থীরা করবে, বহিরাগতরা কেন? তারা গিয়ে সেটি জিজ্ঞেস করেছে শুধু। হামলার অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা।’

ছাত্র ইউনিয়নের দাবি “ছাত্র ইউনিয়নের কলেজ শাখার আহ্বায়ক হিমেল চৌধুরী, যুগ্ম আহ্বায়ক ইয়াছিন আরাফাত, দক্ষিণ জেলার সাবেক সভাপতি সেহাব উদ্দিন সাইফু ও সাজ্জাদ হোসেন এবং দক্ষিণ জেলা যুব ইউনিয়নের সভাপতি অনুপম বড়ুয়া পারু।” তাদের উপজেলার দাশের দিঘীর পাড় এলাকায় বেসরকারি সিরাজ-আনোয়ারা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া হামলায় আরও অন্তত পাঁচজন সাধারণ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

আহতদের মধ্যে সেহাব উদ্দিন সাইফু, সাজ্জাদ ও অনুপম স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজের প্রাক্তন ছাত্র। সেহাব উদ্দিন সাইফু চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সহ সাধারণ সম্পাদক।

শতবর্ষী স্যার আশুতোষ সরকারি কলেজের বহুমুখী সংকট নিরসনের দাবিতে এ মানববন্ধনের ডাক দিয়েছিল ছাত্র ইউনিয়ন।

কলেজ শাখা ছাত্র ইউনিয়নের আহ্বায়ক হিমেল চৌধুরী বলেন, ‘আমরা কলেজ ক্যাম্পাসের বাইরে সড়কে মাত্র মানববন্ধন শুরু করেছি। ১১টা ২০ মিনিটে ক্লাস শেষ করে সাধারণ শিক্ষার্থীরা মানববন্ধনে যোগ দিতে আসছিলেন। এসময় পেছন থেকে কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক রয়েল দেবনাথ ও শিমুল সর্দারের নেতৃত্বে কয়েকজন বাঁশ, লাঠি ও লোহার রড দিয়ে অতর্কিতে আমাদের ওপর হামলা করে। ব্যানার কেড়ে নিয়ে রাস্তায় ফেলে আমাদের বেধড়ক পেটাতে থাকে।’

তিনি বলেন, ‘হামলাকারীরা বারবার বলছিল, আমরা কলেজের অধ্যক্ষের অনুমতি ছাড়া কেন মানববন্ধনের আয়োজন করেছি। আমরা বললাম কলেজের বাইরে মানববন্ধন করতে অধ্যক্ষের অনুমতির প্রয়োজন নেই। কিন্তু তারা আমাদের কথা শোনেনি। হামলা করে আমাদের মানববন্ধন পণ্ড করেছে। পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে আমাদের উদ্ধার করেন।’ ঘটনার পর বোয়ালখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে যান। তারা অধ্যক্ষের সঙ্গে বৈঠক করেন। কলেজে পুলিশ মোতায়েন আছে বলে ওসি জানিয়েছেন।

হামলার বিষয়ে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কারও বক্তব্য জানা যায়নি। তবে জানতে চাইলে দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক বোরহান উদ্দিন বলেন, ‘শনিবার বোয়ালখালীতে তথ্যমন্ত্রী মহোদয়ের কর্মসূচি আছে। ছাত্র ইউনিয়ন হঠাৎ করে কর্মসূচি শুরু করে। এসময় ছাত্রলীগের কয়েকজনের সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয়েছে বলে শুনেছি। শুনেই আমি ছাত্রলীগের নেতাদের বলেছি, কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘঁনা যেন না ঘটে। শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের অধিকার সবার আছে

 
Electronic Paper