নগরে চার দশকে ১২০ পাহাড় বিলুপ্ত

ঢাকা, রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ | ১০ আশ্বিন ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

নগরে চার দশকে ১২০ পাহাড় বিলুপ্ত

জামালুদ্দিন হাওলাদার, চট্টগ্রাম
🕐 ৮:৩১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১৩, ২০২২

নগরে চার দশকে ১২০ পাহাড় বিলুপ্ত

চট্টগ্রাম মহানগরীতেই গত চার দশকে ১২০টির মতো পাহাড় বিলুপ্ত হয়েছে। ৪০ বছর আগেও ২০০ পাহাড় ছিল, যার ৬০ শতাংশ ইতিমধ্যে বিলুপ্ত। চট্টগ্রামের জঙ্গল সলিমপুরসহ চট্টগ্রামের সকল পাহাড় সংরক্ষণ ও ঝুঁকিপূর্ণ অবৈধ বসবাসকারীদের উচ্ছেদ এবং নদী রক্ষার দাবিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

শনিবার (১৩ আগস্ট) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল খালেক মিলনায়তনে চট্টগ্রামের ইতিহাস সংস্কৃতি গবেষণা কেন্দ্র ও বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের যৌথ উদ্যোগে এ সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে।

এতে দু’সংগঠনের কর্মকর্তারা জানান, ইংরেজ শাসনের পর পাকিস্তানে ২৪ বছরে কমেছে পাহাড় সংখ্যা। স্বাধীনতার পর ২০০৮ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রামের ৮৮টি পাহাড় পুরোটাই বিলুপ্ত হয়েছে। একই সময়ে আংশিক কাটা হয়েছে ৯৫টি। এরপরের ১২ বছরে পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার নিয়েছে। শহরের জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে পাহাড় নিধন।

তারা আরও জানান, পাহাড়, নদী, সমদ্রি পরিবেষ্টিত এবং প্রাচ্যের রাণী খ্যাত বন্দরনগরী চট্টগ্রামের সেই জৌলুস এখন ধংসের দ্বারপ্রান্তে। প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার পাহাড়গুলো প্রতিনিয়ত কেটে ধ্বংস করা হচ্ছে। দেশের অন্যতম প্রধান নদী কর্ণফুলী, হালদা ও সাত নদী দখল, দূষণ, ভরাট, চর জাগা এবং পরিকল্পিত ড্রেজিং না করায় ভয়াবহ হুমকির মুখে।

এসময় বক্তব্য দেন চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) সাবেক উপাচার্য প্রফেসর মোজাম্মেল হক, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রফেসর ড. মঞ্জুরুল কিবরিয়া, বাংলাদেশ পরিবেশ ফোরামের সভাপতি চৌধুরী ফরিদ প্রমুখ।

 
Electronic Paper