আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়ল বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা

ঢাকা, বুধবার, ১ ডিসেম্বর ২০২১ | ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়ল বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক
🕐 ২:০৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২১, ২০২১

আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছাড়ল বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা

রাজধানীতে হাফ ভাড়া দিতে চাওয়াকে কেন্দ্র করে ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে ছাত্রীকে ধর্ষণের হুমকি দেয় চালকের সহকারী। এর প্রতিবাদে বকশীবাজারে সড়ক অবরোধ করে বদরুন্নেসা কলেজের শিক্ষার্থীরা।

রোববার দুই ঘণ্টা অবস্থানের পর ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে সড়ক ছেড়ে দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। এসময়ের মধ্যে বাসের সহকারীকে আইনের আওতায় আনাসহ ৮ দফা দাবি ঘোষণা করেছেন তারা।

শিক্ষার্থীদের দাবিগুলো হলো-

শিক্ষার্থীদের হাফ ভাড়া নিশ্চিত করা; ছাত্র-ছাত্রীদের সঙ্গে হয়রানিমূলক আচরণ না করা; শিক্ষার্থীদের বাস থেকে নামানোর সময়ে বাস থামাতে হবে; শিক্ষার্থীদের বাসে উঠতে দেওয়া; বাসে নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা; ধর্ষণের হুমকি প্রদানকারীকে আইনের আওতায় আনা; রায়েরবাগ, শনিআখড়া, কাজলা, সাইনবোর্ড এলাকায় সব ধরনের বাস থামাতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের উঠতে বাধা দেওয়া যাবে না।

দাবি আদায় না হলে আগামীকাল আবারও রাস্তায় নামার ঘোষণা দিয়ে আজকের মতো বিক্ষোভ শেষ করেন শিক্ষার্থীরা।

এর আগে সকাল ১০টার দিকে রাজধানীর বকশীবাজার মোড়ে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন বদরুন্নেসা কলেজের কয়েকশ শিক্ষার্থী।

আন্দোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে শিক্ষার্থীরা বলেন, শনিবার (২০ নভেম্বর) ঠিকানা পরিবহনের একটি বাসে দ্বিতীয় বর্ষের এক ছাত্রী অর্ধেক ভাড়া দিতে চাইলে তাকে ধর্ষণের হুমকি দেন বাসচালকের সহকারী।

হুমকির শিকার ওই ছাত্রী জানান, রাজধানীর শনিরআখড়া থেকে কলেজে আসার জন্য ঠিকানা পরিবহনের বাসে উঠেন তিনি। শনিরাখড়া থেকে কলেজের ভাড়া ১০ টাকা। কিন্তু ওই ছাত্রীর কাছ থেকে ১৫ টাকা ভাড়া রাখা হলে তিনি নিজেকে স্টুডেন্ট বলে ১০ টাকা ফেরত চাইলে চালকের সহকারী তার সঙ্গে খারাপ ভাষায় কথা বলেন। পরে কলেজের সামনে বাস থেকে নেমে যাওয়ার সময়ে তাকে ৫ টাকা দিয়ে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতনের হুমকি দেন।

ওই ছাত্রী আরও বলেন, বাসটি চলন্ত অবস্থায় থাকায় বাসটির নম্বর মনে রাখতে পারিনি। তাদের এই ভোগান্তি প্রতিদিনের জানিয়ে তিনি আরও বলেন, বাসগুলো তাদের তুলতেও চায় না।

আরেক শিক্ষার্থী বলেন, ‘হাফ ভাড়া ছাড়াও রাস্তায় নারীদের সম্মান করা হয় না। বিশেষ করে আমরা যারা ছাত্রী আছি, আমাদের বাসে তুলতে চায় না বাসের লোকজন। রাস্তায় ছাত্রী দেখলে বাসের দরজা বন্ধ করে দেয়। আমরা চাই গণপরিবহনে নারী হয়রানি বন্ধ ও হাফ ভাড়া বাস্তবায়ন হোক।

 
Electronic Paper