হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে আগুন, জবিতে নীল দলের মানববন্ধন

ঢাকা, সোমবার, ৬ ডিসেম্বর ২০২১ | ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে আগুন, জবিতে নীল দলের মানববন্ধন

জবি প্রতিনিধি
🕐 ৪:৫৪ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০২১

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে আগুন, জবিতে নীল দলের মানববন্ধন

রংপুর জেলার পীরগঞ্জে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়িঘরে আগুন দেওয়ার ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় নীলদল।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) দুপুর ২টায় বিশববিদ্যালয় শহিদ মিনার চত্ত্বরে মানববন্ধন শুরু হয়।

জবি নীলদলের সাধারণ সম্পাদক ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক কামাল হোসেনের সঞ্চালনায় প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নিয়ে রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড.এ.কে.এম লুৎফর রহমান বলেন, ‘আমরা সবাই বাঙ্গালী, এদেশে সবাই যার যার ধর্ম নির্ভিগ্নে পালন করবে। দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যে ধ্বংসযজ্ঞ চলছে, আমাদের এর বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলতে হবে।’

ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ড. সেলিম বলেন, ‘অসাম্প্রদায়িকতা চর্চা করার বিষয়, এটা বায়বীয় কোনো আদর্শ নয়। আমাদের ব্যক্তিজীবনে একে লালন ও পালন করতে হবে, না হলে নিজেকে ছোট করা হবে, আমরা জাতি হিসেবে মাথানত করে থাকতে হবে। মুক্তিযুদ্ধে এদেশের হিন্দু ভাইদের অনেক অবদান। মনুষ্যত্বকে ধারণ করে সবাইকে নিয়ে চলার মানসিকতা গড়ে তোলতে হবে আমাদের।’

ইতিহাস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মুর্শিদা বিনতে রহমান বলেন, ‘অসাম্প্রদায়িকতা না থাকলে, বাঙ্গালী জাতির পরিচয় থাকে না, এভাবে চলতে পারে না, যে যেখান থেকে পারেন আওয়াজ তুলুন। সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে কথা বলুন।’

সভাপতির বক্তব্যে জবি নীলদলের সভাপতি অধ্যাপক ড. আবুল হোসেন বলেন, ‘স্বার্থান্বেষীরা পরিকল্পিতভাবে হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। এসব হামলা পরিকল্পিতভাবে হওয়া সত্ত্বেও প্রশাসন নির্বিকার ছিল। এসব বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।’

এছাড়া বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত শাস্তি নিশ্চিত করে এ ধরণের ঘটনা যেনো আর না ঘটে সে ব্যাপারে উদ্যোগ নিতে সরকারের প্রতি আহবান জানান শিক্ষকরা।

কর্মসূচিতে এসময় বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সাবেক ডিন অধ্যাপক ড. শওকত জাহাঙ্গীর, অধ্যাপক ড. খোদেজা খাতুন, ইংরেজি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক তানভীর আহসানসহ নীলদলের বিভিন্ন শিক্ষক, বিভিন্ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অংশ নেন।

 
Electronic Paper