মহিপুর আলীপুরে দুটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র

ঢাকা, বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১ | ৪ কার্তিক ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

মহিপুর আলীপুরে দুটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র

সোলায়মান পিন্টু, কলাপাড়া, পটুয়াখালী
🕐 ১১:৪৯ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২১

মহিপুর আলীপুরে দুটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ. ম. রেজাউল করিম বলেছেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি বিএনপির নিতান্তই মূর্খতা। প্রচলিত আইন অনুযায়ী নির্বাচন করবে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন হবে দেশের সংবিধান অনুযায়ী। সংবিধানের নিরপেক্ষ সরকার বা তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা বলতে কিছু নেই।

তিনি বলেন, দেশের সর্বোচ্চ আদালত এ ব্যাপারে বলেছেন, গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যবস্থায় অনির্বাচিত সরকারের হাতে রাষ্ট্র ক্ষমতা দেওয়ার কোনো বিধান নেই। বিএনপি, তাদের জোট ও সহযোগীদের দাবি সংবিধান পরিপন্থী। বিএনপি তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসার যে স্বপ্ন দেখছে তা কখনো সম্ভব নয়। মানুষ ভোট দেবে, ভোটের মাধ্যমে নির্ধারণ হবে কে ক্ষমতায় আসবে।

গতকাল সোমবার বিকাল ৩টায় পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় মহিপুর ও আলীপুরে দুটি মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে দুপুর ১টার দিকে মন্ত্রী কলাপাড়া পৌরশহরে অবস্থিত বিএফআরআই-এর আওতাধীন নদী-উপকেন্দ্রের অফিস ও গবেষণাগার ভবন উদ্বোধন করেন।

উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রীর একান্ত সচিব ড. আবু নঈম মুহাম্মদ আবদুস ছবুর, জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. ইফতেখার হোসেন, বিএফডিসির চেয়ারম্যান কাজী হাসান আহমেদ, প্রকল্প পরিচালক জামাল হোসেন মজুমদার, পরিচালক মনজুন হাসান ভুইয়া, কলাপাড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এসএম রাকিবুল আহসান, কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবু হাসনাত মোহাম্মদ শহিদুল হক। এছাড়া স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মৎস্য ব্যবসায়ীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে মন্ত্রী বিকেল পৌনে ৩টার দিকে তার পরবর্তী সফর হিসেবে কুয়াকাটার উদ্দেশে যাত্রা করেন।

মৎস্য অবতরণ কেন্দ্র উদ্বোধন হওয়ায় খুশি এলাকার জেলে ও স্থানীয় মৎস্য ব্যবসায়ীরা। এটি সরকারের রাজস্ব আয়ের ক্ষেত্রে সহায়ক হবে বলে ব্যবসায়ীরা উল্লেখ করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, বাংলাদেশ মৎস্য উন্নয়ন করপোরেশন ২০১৬ সালের মৎস্য বন্দর মহিপুর ও আলিপুরে অবতরণ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ শুরু করে। মাছ ধরার ট্রলার থেকে মাছ এই অবতরণ কেন্দ্রে নামানোর জন্য নির্মাণ করা হয়েছে উন্নত মানের পন্টুন ও গ্যাংওয়ে। থাকছে আইসপ্লান্ট, মাছ প্যাকেজিং করার জন্য আলাদা প্যাকেজিং সেট, আড়তদারদের অফিস কক্ষ, স্যানিটেশন ও পয়ঃনিষ্কাশনের আধুনিক সুযোগ-সুবিধা। এছাড়া মাছ পরিবহনের জন্য তৈরি করা হয়েছে সাত হাজার স্কয়ার ফিটের ট্রাক স্ট্যান্ড।

উল্লেখ্য, আলীপুর মৎস্য অবতরণ কেন্দ্রটি ১৫ কোটি ৪৬ লাখ টাকা ব্যয়ে ১ একর ১০ শতাংশ জমির ওপর নির্মিত হয়। অপরদিকে, মহিপুর অবতরণ কেন্দ্রটি ১৩ কোটি ৫০ লাখ টাকা ব্যয়ে ১ একর ৯ শতাংশ জমির ওপর নির্মিত হয়েছে। এতে হাজার হাজার জেলে এবং মৎস্য ব্যবসায়ীদের মাছ ক্রয়-বিক্রয়সহ ট্রলার থেকে সরবরাহ করা অনেক সহজ হবে বলে জানান স্থানীয় মৎস্য ব্যবসায়ী ও মহিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো.ফজলুর রহমান গাজী।

 
Electronic Paper