আমতলীতে বৃষ্টিতে অর্থ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট

ঢাকা, সোমবার, ১ জুন ২০২০ | ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

আমতলীতে বৃষ্টিতে অর্থ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি ২:৩৭ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ০৬, ২০২০

print
আমতলীতে বৃষ্টিতে অর্থ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট

বরগুনার উপকুলীয় উপজেলা আমতলীতে গত শনিবার সন্ধ্যায় তুমুল বৃষ্টিতে অন্তত অর্থ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। এতে ২৩ টি ইটভাটায় প্রায় পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ইটভাটার মালিকরা। করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবে এই সময়ে বৃষ্টির ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে পারবে না বলে দাবি করেন ইটভাটার মালিকরা। দ্রুত তারা সরকারের কাছে সহায়তার দাবি করেছেন।

জানা গেছে, গত শনিবার সন্ধ্যায় উপকুলীয় আমতলী উপজেলায় তুমুল বৃষ্টি হয়। আধা ঘন্টা তুমুল বৃষ্টিতে উপজেলার ২৩ টি ইটভাটার অন্তত অর্ধ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে গেছে। এতে প্রায় পাঁচ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন ইটভাটার মালিকরা। নষ্ট ইট অপসারণে সমস্যা হওয়ায় অনেক ইটভাটা বন্ধের উপক্রম হয়েছে। ফলে বিপাকে পড়েছে ইটভাটার মালিকরা। নষ্ট ইট অপসারণ না করা পর্যন্ত নতুন ইট তৈরি করা যাবে না।

ইটভাটার মালিকরা জানান, দুইভাবেই ইটভাটার মালিকরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। একদিকে কাঁচা ইট নষ্ট হয়েছে অন্যদিকে নষ্ট ইট অপসারণে টাকার প্রয়োজন। তারা আরও জানান, বৃষ্টির কারণে সময়ের পনের দিন পূর্বেই ইট পোড়ানো বন্ধ হয়ে যাবে। আর তেমন ইট পোড়াতে পারবো না।

সরেজমিনে জিমি, সাউথ, কেএবি, আরএএবি, সাগর , আকন, মুন্সি, ঢাকা, মা, আরএনটি, এএটি, এনবিএম ও তৌহিদ ইটভাটা ঘুরে দেখা গেছে, তুমুল বৃষ্টিতে কাঁচা ইট নষ্ট হয়ে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে এবং দলা হয়ে কাঁদায় পরিণত হয়েছে। ইট নষ্ট হওয়ায় ভাটার মালিকরা হতাশ হয়ে পরেছেন।

কেএবি ইট ভাটার মালিক হাসান মৃধা বলেন, দুই লাখ কাঁচা ইট বৃষ্টিতে নষ্ট হয়ে গেছে। এতে প্রায় ১২ লাখ টাকার ক্ষতি হবে। তিনি আরও বলেন, বৃষ্টিতে নষ্ট হওয়া ইট অপসারণে অনেক টাকার প্রয়োজন হবে। দুই ভাবে আমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি।

আরএএবি ইটভাটার মালিক হারুন আর রশিদ আকন বলেন, দের লাখ কাচা ইট নষ্ট হয়েছে। বৃষ্টিতে নষ্ট ইট অপসারণ, এক সপ্তাহ ১৫০ জন শ্রমিকের কাজ বন্ধ ও নতুন ইট তৈরি বন্ধসহ সব মিলিয়ে অন্তত বিশ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে।

সাউথ ইটভাটার ম্যানেজার মোশাররফ হোসেন বলেন, বৃষ্টিতে যে ক্ষতি হয়েছে তা এ বছর পুষিয়ে উঠা যাবে না। তিনি আরও বলেন, অন্তত দেড় লাখ কাঁচা ইট নষ্ট হয়েছে।

গুলিশাখালী ইউনিয়নের এনবিএম ইটভাটার মালিক ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম বলেন, বৃষ্টিতে অন্তত পাঁচ লাখ কাঁচা ইট নষ্ট হয়েছে। সব মিলিয়ে এতে ক্ষতির পরিমান প্রায় ত্রিশ লাখ টাকা।

আমতলী উপজেলা ইটভাটা মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম তালুকদার বলেন, উপজেলার ২৩টি ইটভাটায় অন্তত অর্ধ কোটি কাঁচা ইট নষ্ট হয়েছে। এতে ক্ষতির পরিমান প্রায় ৫ কোটি টাকা। এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সরকারের কাছে সহায়তার দাবি জানাই।

আমতলী ইটভাটা মালিক সমিতির সভাপতি সাবেক পৌর মেয়র নাজমুল আহসান নান্নু বলেন, বৃষ্টিতে যে ক্ষতি হয়েছে তা পুষিয়ে উঠা সম্ভব না। এ ক্ষতি পুষিয়ে উঠতে সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন। এ শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সরকারের কাছে সল্প সুদে ঋণ পাওয়ার দাবি জানাই।