‘৭শ টাহা ক্যামনে দিমু’

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

প্রাথমিক সমাপনীতে ফেয়ারওয়েল চাঁদা

‘৭শ টাহা ক্যামনে দিমু’

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ৪:৫৫ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৯, ২০১৯

print
‘৭শ টাহা ক্যামনে দিমু’

মোটরসাইকেলে যাত্রী টাইন্যা সংসার চলে। অর ল্যাহা-পড়ার খরচও চালাই। এসব কথা বলেন ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালক ও অভিভাবক নুরুল ইসলাম। এ বছর প্রাইমারি স্কুল সমাপনী পরীক্ষায় অংশ নেবে তার মেয়ে শান্তা। আর ওই স্কুল থেকে দেওয়া হবে ফেয়ারওয়েল।

অনুষ্ঠানের আগেই পরিশোধ করতে হবে স্কুল নির্ধারিত পরীক্ষার্থীদের মাথাপিছু সাতশ টাকা হারে চাঁদা (ফেওয়ারওয়েল ফি)। মেয়ের ফেয়ারওয়েলের চাঁদা পরিশোধে তাই চোখে-মুখে ক্ষোভ আর হতাশার ছাপ স্থানীয় ধান্দী বাজারের এক চায়ের দোকানের সামনে মোটরসাইকেলের যাত্রীর অপেক্ষায় থাকা নুরুল ইসলামের।

প্রধান শিক্ষিকা আভা রাণী বলেন, ‘আমি স্কুলে অল্প কয়েকদিন আগে জয়েন্ট করেছি। সভাপতি ও স্যাররা মিটিংয়ে টাকার বিষয়টি নির্ধারণ করেছেন। ওই দিন আমি স্কুলে ছিলাম না। এক স্যার কোচিং করিয়েছেন তার বাবদ ও অন্যান্য খরচ হিসেবে টাকা নেওয়া হচ্ছে।’

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা রিয়াজুল হক বলেন, ‘বিষয়টি আমার জানা নেই। তদন্ত করে দেখা হবে। ঘটনা সত্য হলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।