দুই বছরেও হয়নি তিন সেতুর নির্মাণ কাজ

ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯ | ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দুই বছরেও হয়নি তিন সেতুর নির্মাণ কাজ

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি ৪:৪৭ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৯

print
দুই বছরেও হয়নি তিন সেতুর নির্মাণ কাজ

পটুয়াখালী বাউফলে কনকদিয়া ইউপির কনকদিয়া বাজার থেকে কালিশুরি কুমারখালী পর্যন্ত কানেকটিং সড়কে প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা ব্যয়ে তিনটি সেতু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়ায় তিনটি ইউনিয়নের জনসাধারণের দুর্ভোগের শেষ নেই।

উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্র জানায়, বরগুনা-পটুয়াখালী গ্রামীণ সড়ক অবকাঠামো উন্নায়নের নামে একটি প্রকল্পের অধিনে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে কনকদিয়া, সূর্যমনি ও কালিশুরির ইউনিয়নের কুমারখালি সংযোগ সড়কের তিনটি খালে তিনটি সেতু নির্মাণের জন্য সাড়ে তিনকোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পের চাহিদা তৈরি করে দরপত্র আহবান করা হয়।

উক্ত কাজে দরপত্র অনুযায়ী এমএম বিল্ডার্স নামে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান একটি প্যাকেজে ওই তিনটি সেতু নির্মাণের কাজটি পায়। পরে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে বাউফল উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কাজটি সম্পন্ন করার জন্যে কার্যাদেশ দেয়। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান ওই প্যাকেজের দুটি সেতুর কাজ করে সড়কের শেষ প্রান্তে থাকা অন্য সেতুটির পাইল গেড়ে কাজ বন্ধ করে রেখেছে। যে দুটি সেতু নির্মিত হয়েছে তার উভয় পাশে এ্যপ্রোচের সড়ক তৈরী না করায় ওই সেতু দুটিও জনসাধারণ যোগাযোগের জন্য ব্যবহার উপযোগী না।

ইউপি চেয়ারম্যান শাহিন হাওলাদার অভিযোগ করে বলেন, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসহীনতার কারণে সূর্যমনি, কনকদয়িা, কালিশুরি এই তিন ইউনিয়নের প্রায় ৪০-৫০ হাজার মানুষের যোগাযোগের একমাত্র সড়কটির ব্রিজ তিনটির কাজ শেষ না করার জন্য দুর্ভোগ পোহাচ্ছে জনসাধারণ।

ঠিকাদার খবির সিকদার বলেন, স্থানীয় লোকজনের বাধার কারণে সেতুটির পাইল করে কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। কোন অনিয়ম হয়নি সিডিউল মোতাবেক কাজ করা হচ্ছে।

পটুয়াখালী স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধীদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী তীর্থ জীত রায় বলেন, বরগুনা পটুয়াখালী প্রকল্পের মেয়াদ শেষ। কিন্তু সেতু তিনটি এতো সময়েও কাজ শেষ না হওয়ায় গাফেলতির বিষয়ে খবর নিয়ে সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।