দখল রোধে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

ঢাকা, শনিবার, ২৩ নভেম্বর ২০১৯ | ৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

দখল রোধে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

ইন্দুরকানী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি ৭:০৫ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ১৬, ২০১৯

print
দখল রোধে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

সরকারি সম্পত্তি রক্ষায় পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ নিয়েছেন ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। সরকারি জমি রক্ষা করতে তিনি বিভিন্ন স্থাপনা এবং খাল দখল রোধ করতে লাল নিশান ও সাইনবোর্ড সাঁটিয়েছেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ এ উপজেলায় যোগদান করে জনস্বার্থে সরকারি জমি রক্ষা করতে তিনি এমন উদ্যোগ নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি এ উপজেলার ইন্দুরকানী-সেউতিবাড়িয়া খাল ও সড়কের পার্শ্বের সরকারি জমি উদ্ধারের জন্য জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে সরকারি জমির সীমানা নির্ধারণ করে ইন্দুরকানী সরকারি কলেজের সামনে থেকে উপজেলা পরিষদের প্রবেশ মুখ পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে লাল নিশান ও সাইনবোর্ড টানিয়ে দিয়েছেন।

লাল নিশান টানানোর কারণে খাল ও সড়কের পার্শ্বের বিভিন্ন স্থাপনার মালিকরা রয়েছে উৎকন্ঠায়।

এর আগে একাধিকবার উপজেলা প্রশাসন সরকারি জমি উদ্ধারের জন্য উপজেলা পরিষদের রেজুলেশন করে চেষ্টা করলেও তা সফল হয়নি। নিষেধ সত্ত্বেও স্থানীয় প্রভাবশালীরা বছরের পর বছর ধরে ইচ্ছেমতো খাল দখল করে যে যার মতো করে স্থাপনা নির্মাণ করেন। তাই সড়কের পাশ ও খাল দখল করে স্থাপনা নির্মাণ ঠেকাতে সরকারি জমি রক্ষায় নবাগত ইউএনওর এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন এলাকার সচেতন মহল।

পত্তাশী ইউপি চেয়ারম্যান হাওলাদার মো. মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, কতিপয় ব্যক্তি সেউতিবাড়ীয়া ও চাড়াখালী খাল ও সড়কের জমি দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা নির্মাণ করেছে। ইউএনওর এ উদ্যোগকে আমি সাধুবাদ জানাই। সরকারি জমি রক্ষায় উপজেলা প্রশাসন যে উদ্যোগ নিয়েছেন সে ব্যাপারে আমি সব ধরনের সহায়তা করব।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মুহাম্মদ আল-মুজাহিদ জানান, ভালো কিছু করার মানসিকতা নিয়েই আমি এগুতে চাই। এজন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।