শহীদ মিনার নির্মাণে অনিয়ম

ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ২ আশ্বিন ১৪২৬

শহীদ মিনার নির্মাণে অনিয়ম

শফিউল আজম টুটুল, ঝালকাঠী ৮:৫৬ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ০৫, ২০১৯

print
শহীদ মিনার নির্মাণে অনিয়ম

ঝালকাঠী সদর উপজেলায় এশিয়ান ডেভলপমেন্ট প্রজেক্টের বরাদ্দ টাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণে ব্যাপক অনিয়ম ও লুটপাটের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সদর উপজেলার ৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণে প্রতিটির জন্য এক লাখ টাকা করে বরাদ্দ রয়েছে। অথচ ২০/৩০ হাজার টাকা খরচ করেই শহীদ মিনারের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সদর উপজেলার বালিঘোনা মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কাঁচাবালিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়, সাওড়াকাঠি নব আদর্শ বালিকা বিদ্যালয় ও পিপলিতা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসব শহীদ মিনারের নির্মাণ কাজ চলছে। সদর উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালীর তত্ত্বাবধানে শহীদ মিনার নির্মাণের কাজ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রকল্প কর্মকর্তারা।

এ প্রসঙ্গে গাভারামচন্দ্রপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গোলাম মাওলা মাসুম শেরওয়ানি বলেন, শহীদ মিনরার নির্মাণ নিয়ে চরম অনিয়ম হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমিও বিব্রতকর অবস্থায় আছি।

এ বিষয় জানতে চাইলে এই প্রকল্পের সদস্য সচিব সদর উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী লুৎফর রহমান এ প্রতিবেদককে বলেন, এ বিষয় আমি এখন বলতে পারব না, এসও মঞ্জুর সাহেবের সঙ্গে কথা বলেন।

এসও উপসহকারী প্রকৌশলী মঞ্জুর রহমান বলেন, শহীদ মিনারের জন্য এক লাখ টাকা না ৮০ হাজার টাকা বরাদ্দ হয়েছে তা এ মূহুর্তে মনে নেই। বিষয়টি মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালি আপা তত্ত্বাবধান করছেন। সেই ভালো বলতে পারবে।

ভাইস চেয়ারম্যান ইসরাত জাহান সোনালি বলেন, আমিই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছি। এরপর তা নির্মাণে ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেলেও ভ্যাট-ট্যাক্স কেটে যা থাকে তা সঠিকভাবে কাজে লাগানো হয়েছে। তবে টাইলসের কাজ বর্ষার জন্য করা যাচ্ছে না।