মিন্নিকে জীবিত ফেরত পাওয়া নিয়ে সংশয় বাবার

ঢাকা, শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ | ৩০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

মিন্নিকে জীবিত ফেরত পাওয়া নিয়ে সংশয় বাবার

বরগুনা প্রতিনিধি ১১:৪৬ পূর্বাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০১৯

print
মিন্নিকে জীবিত ফেরত পাওয়া নিয়ে সংশয় বাবার

বরগুনার রিফাত হত্যা মামলার সাক্ষী থেকে আসামি আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির স্বজনরা জেলগেটে দেখা করেছেন তার সঙ্গে।

এ সময় মিন্নির বাবা আবারও মেয়ের অসুস্থতার অভিযোগ তোলেন। ‘অসুস্থ’ মিন্নিকে জীবিত ফেরত পাবেন কি না এমন আশঙ্কাও প্রকাশ করেন তিনি।

গতকাল শনিবার বেলা ১১টার দিকে জেলগেটে মিন্নির বাবা ও মা-সহ অন্য আত্মীয়স্বজন দেখা করে তার শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন। প্রায় ৩০ মিনিট তারা কথা বলেন।

সাক্ষাতের পর মিন্নির বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর বলেন, ‘আমি দেখলাম আমার মেয়ে খুবই অসুস্থ কিন্তু চিকিৎসক ও জেলার বলেন মিন্নি সুস্থ আছে। তবে আমার মনে হলো ও সুস্থ নয়। ওকে জীবিত ফিরে পাব কি না সন্দেহ হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘মিন্নি যা বলে আমি কিছু বুঝি না। তার মধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা আমাদের বিরক্ত করে। তাই মিন্নির সঙ্গে ঠিকমতো কথা বলতে পারিনি আমরা।’

এর আগে স্বজনরা গত ২০ জুলাই মিন্নির সঙ্গে দেখা করেন। তখনো মোজাম্মেল হোসেন কিশোর মেয়ের অসুস্থতার অভিযোগ তুলেছিলেন। যদিও গত শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টায় বরগুনা সিভিল সার্জন অফিসের ডা. হাবিবুর রহমান কারাগারে আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির খোঁজখবর নিয়ে জানিয়েছেন, তিনি সুস্থ আছেন।

আয়শা সিদ্দিকা মিন্নিকে তার স্বামী রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় গত ১৬ জুলাই রাত ৯টার দিকে গ্রেফতার করে বরগুনা কারাগারে পাঠানো হয়। পরের দিন বিকাল সোয়া ৩টার দিকে কারাগার থেকে বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে হাজির করে ৫ দিনের রিমান্ডে নেয় পুলিশ। রিমান্ডে নিয়ে ৪৮ ঘণ্টা পরেই ১৯ জুলাই বেলা ২টার দিকে মিন্নিকে বরগুনার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজীর আদালতে হাজির করে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নেওয়া হয়। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মিন্নিকে বরগুনা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।