নিজের ফাঁদেই আটকা

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬

নিজের ফাঁদেই আটকা

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি ৫:০৬ অপরাহ্ণ, মে ১৫, ২০১৯

print
নিজের ফাঁদেই আটকা

চাচাতো ভাই মনির প্যাদাকে তানিয়া নামে একটি মেয়েকে দিয়ে মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় ফাঁসাতে গিয়ে রুবেল প্যাদা নিজেই ফেঁসে গেলেন। ঘটনাটি ঘটেছে গত সোমবার রাতে আমতলী উপজেলার ছুরিকাটা গ্রামে।

জানা গেছে, উপজেলার ছুরিকাটা গ্রামের আলতাফ প্যাদার ছেলে রুবেল প্যাদার সঙ্গে চাচাতো ভাই মনির প্যাদার জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। ভাইকে মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় ফাঁসাতে তানিয়া নামে একটি মেয়েকে ঠিক করেন রুবেল।

সোমবার রাতে তানিয়াকে দিয়ে আমতলী থানায় চাচাতো ভাই মনির প্যাদা ও একই এলাকার তোফাজ্জেল বেপারীর বিরুদ্ধে মিথ্যা ধর্ষণ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। সুযোগ বুঝে তানিয়া ওসি মো. আবুল বাশারের কাছে রুবেল প্যাদা ও তার স্ত্রী চম্পা বেগম তাকে কাজ দেওয়ার কথা বলে আটকে অসামাজিক কাজে বাধ্য করছে এবং সাজানো মিথ্যা ধর্ষণ মামলার প্রস্তুতির কথা স্বীকার করে আসল রহস্য ফাঁস করে দেন।

পরে তানিয়া আক্তার বাদী হয়ে রুবেল প্যাদা ও চম্পার বিরুদ্ধে মানবপাচার প্রতিরোধ ও দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। পুলিশ রুবেল প্যাদাকে গ্রেফতার করেছে। গতকাল মঙ্গলবার পুলিশ তাকে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করেছে।

আমতলী থানার ওসি আবুল বাশার বলেন, রুবেল তার চাচাতো ভাইকে মিথ্যা ধর্ষণ মামলায় ফাঁসাতে তানিয়া নামের একটি মেয়েকে থানায় নিয়ে আসেন। থানায় এসে ওই মেয়েটি রুবেল প্যাদা ও তার স্ত্রী চম্পা তাকে দিয়ে পতিতাবৃত্তি করানো এবং মিথ্যা সাজানো মামলার সব ঘটনা খুলে বলেন। পরে মেয়েটি নিজেই বাদী হয়ে রুবেল প্যাদা ও তার স্ত্রী চম্পার বিরুদ্ধে মামলা করেছেন।