ঢাকা, সোমবার, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ | ১৭ মাঘ ১৪২৯

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

সিত্রাং আতঙ্ক, উপকূলে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির আশঙ্কা

পটুয়াখালী প্রতিনিধি
🕐 ৫:২০ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ২৪, ২০২২

সিত্রাং আতঙ্ক, উপকূলে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতির আশঙ্কা

ঘুর্ণিঝড় সিত্রাং ধেয়ে আসছে- এমন খবরে উপকূলীয় জেলা পটুয়াখালীতে বিরাজ করছে আতঙ্ক। ঘুর্ণিঝড় প্রভাবে সকাল থেকে জেলার সর্বত্র বৃষ্টি ও ঝড় হাওয়া বইছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সিত্রাং এর ভয়াবহতার আগাম খবরে মানুষ অনেকটা আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পরেছে।

 

সিডর, আইলাসহ বিভিন্ন সময় হওয়া ঘুর্ণিঝড় ও জলোচ্ছ্বাসে ক্ষতির শিকার সকল শ্রেণি পেশার মানুষ ফের জীবন ও সম্পদ হানির শঙ্কায় উৎকন্ঠায় রয়েছেন। এছাড়াও জেলার অধিকাংশ বেড়িবাঁধ বিধ্বস্ত। এখন জলোচ্ছ্বাস হানা দিলে এসকল উপকূলীয় মানুষের জীবন ও সম্পদের ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা রয়েছে।

জানা গেছে, সাগরনিকটবর্তী উপজেলা কলাপাড়ার লতাচাপলী, কুয়াকাটা ও ধুলাসার ইউনিয়নের একাংশের মানুষও ঝুঁকিতে রয়েছেন। কারণ এইসব এলাকায় বেড়িবাঁধের পুননির্মাণ ও মেরামতের কাজ চলছে। যেখানে মাটির বদলে বেশি সংখ্যক বালু ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে জলোচ্ছ্বাসের ঝাপটায় ওই বাঁধ ভেসে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন ইউনিয়নে বেড়িবাঁধের বাইরে বসবাস হাজার পরিবারের। এসব পরিবারের মানুষ তাদের ঘরবাড়ি নিয়ে জলোচ্ছ্বাসের ঝাপটায় চরম ক্ষতির শঙ্কায় পড়েছেন। কুয়াকাটায় জিরো পয়েন্টের দুই দিকে বাঁধের বাইরের ঝুপড়ি ঘরে বসবাস করা পাঁচ শতাধিক পরিবারে বিরাজ করছে এক ধরনের অজানা ক্ষতির শঙ্কা।

তবে ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং মোকাবেলায় পটুয়াখালী জেলা দুর্যোগ ব্যাবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জেলা প্রশাসক মো: কামাল হোসেন ৭০৩ টি সাইক্লোন শেল্টার ও ব্যাবহারযোগ্য ২৬ টি মুজিব কিল্লায় বিদ্যুৎ ও সুপেয় পানি, পর্যাপ্ত মেডিকেল টিম, দরকারি ঔষধ, শুকনো খাবার, অরক্ষিত ও দুর্বল বেড়িবাঁধ জরুরি মেরামত, সকল মানুষের কাছে সতর্ক বার্তা পৌঁছে দিয়ে তাদেরকে সতর্ক করন, উদ্ধারকর্মী ও স্বেচ্ছাসেবদের প্রস্তুতকরন, জরুরী সড়ক মেরামত, প্রতিটি উপজেলা ও জেলায় নিয়ন্ত্রন কক্ষ প্রস্তুত রাখার নির্দেশনা প্রদান করেছেন।

 
Electronic Paper