অনলাইন ক্লাসের সুবিধা

ঢাকা, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১ | ৯ মাঘ ১৪২৭

অনলাইন ক্লাসের সুবিধা

মুহিত আহমেদ জামিল ১২:২৭ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ০১, ২০২০

print
অনলাইন ক্লাসের সুবিধা

* শিক্ষকের অনুমতি ছাড়াই ওয়াশরুমে যাওয়া যায়।
* শুয়ে, বসে, দাঁড়িয়ে, হেঁটে— এককথায় যেভাবে ইচ্ছে সেভাবে ক্লাস করা যায়।
* ক্লাসের ফাঁকে ফাঁকে নাস্তার পর্বও সারা যায়।
* ক্লান্তি লাগলে ঘুমিয়ে পড়া যায়।

* ‘কী পরে ক্লাসে যাব’ এটা নিয়ে মোটেই ভাবতে হয় না। চাইলে লুঙ্গি ও স্যান্ডো গেঞ্জি পরেই ক্লাস করা যায়। মেয়েদের আরেকটু বেশি সুবিধা। পোশাকের মতো মেকাপ নিয়েও একদমই চিন্তা-ভাবনা করা লাগে না।
* স্যার/ম্যাডামের জিজ্ঞেস করা কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে না পারলে হুট করে ক্লাস থেকে বেরিয়ে যাওয়া যায়। পরে এ ব্যাপারে কিছু জানতে চাইলে ধুম করে ‘নেটওয়ার্কে সমস্যা ছিল’ বলে ফেলা যায়।
* অফলাইনের ক্লাসে উপস্থিত থাকলে বন্ধুদের খোঁচাখুঁচি করা ব্যতীত বলতে গেলে তেমন কিছুই করা যায় না। পুরো ক্লাসজুড়েই চেয়ারে বসে থাকতে হয়। এদিকে অনলাইনের ক্লাস করে চাইলে পার্টটাইম জব পর্যন্তও করে ফেলা সম্ভব। মোটকথা, অনলাইন ক্লাস মাল্টিটাস্কিং সহায়ক।
* বিরক্তি লাগলে ক্লাস করার পাশাপাশি যখন-তখন ফেসবুক, ইউটিউব কিংবা ইনস্টাগ্রামে ঢুঁ মারা যায়।
* ইচ্ছেমতো ক্লাস থেকে বেরিয়ে যাওয়া যায়।
* দেরিতে ক্লাসে জয়েন করলেও শিক্ষকরা খুব একটা বকা দেওয়ার সুযোগ পান না।