ট্রাম্পের করণীয়

ঢাকা, শনিবার, ১৬ জানুয়ারি ২০২১ | ২ মাঘ ১৪২৭

ট্রাম্পের করণীয়

হেলাল নিরব ২:০০ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১০, ২০২০

print
ট্রাম্পের করণীয়

যুক্তরাষ্ট্রকে দ্বিতীয়বারের মতো গ্রেট বানানো সুযোগ পেল না ধনকুবের ও ব্যবসায়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প। সদ্য সাবেক হওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পরে কী করতে পারেন? ট্রাম্পের আগামীতে করণীয় কী? সেটা যতটা না স্বয়ং ট্রাম্প ভাবছেন তার থেকে বেশি ভেবেছেন বাংলাদেশিরা!

মার্কিন নির্বাচনে জো বাইডেনের সঙ্গে লড়তে গিয়ে প্রচুর অর্থ হাতছাড়া হয়েছে ট্রাম্পের। সাবেক এ টিভি তারকা সেই বিপুল পরিমাণ অর্থের ক্ষতিটা পুষিয়ে নিতে বাংলাদেশে পেঁয়াজ বা আলু নিয়ে ব্যবসার চিন্তা করতে পারে। বাংলাদেশে সম্ভাবনাময় এ ব্যবসায় নামলে নিশ্চিত তার হারিয়ে যাওয়া অর্থ খুব দ্রুতই পুষিয়ে উঠতে পারবে।

অবৈধ নির্বাচনে জয়ী জো বাইডেনকে (ট্রাম্পের মতে) উৎখাতের জন্য ট্রাম্প ঈদের (অনির্দিষ্ট!) পরে কঠোর আন্দোলনে নামার হুমকি দিতে পারেন। এছাড়া বাংলার অনেক রাজনীতিবিদের কাছ থেকে অনলাইনে ‘নির্বাচন বর্জন’ শিরোনামের আন্দোলন সম্পর্কের প্রশিক্ষণ নিতে পারেন। এতে ট্রাম্পের সুদূরপ্রসারী চিন্তাভাবনার বহিঃপ্রকাশ ঘটবে।

আমেরিকানদের কাগজে-কলমে সভ্য বলা হলেও তারা ততটা সভ্য হয়ে উঠতে পারেনি। আর হেরে যাওয়া ডোনাল্ড ট্রাম্প সেই সুযোগটা কাজে লাগাতে পারে। মার্কিন নির্বাচনে জালিয়াতির অভিযোগের গুজব এনে ‘বয়কট নির্বাচন’ হ্যাশট্যাগে তুমুল আন্দোলন গড়ে তুলতে পারে। এতে পুনরায় নির্বাচন না হলেও ট্রাম্প অন্ততপক্ষে বলতে পারবে, জো বাইডেন জোচ্চুরি করে ক্ষমতায় বসেছে।

আমেরিকার নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেনের অভিষেক হবে আগামী বছরের জানুয়ারির শেষের দিকে। আর এর মাঝে ট্রাম্পের হাতে থাকা সময়টুকুতে উত্তর কোরিয়া বা ইরানে কয়েকটা সিরিজ বোমা হামলা চালাতে পারে ট্রাম্প। ট্রাম্পের ক্ষমতা প্রদর্শনে আমেরিকানদের তার প্রতি মন গললেও গলতে পারে। অথবা ট্রাম্প সুযোগ থাকলে ‘প্রত্যেক প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার মেয়াদ হবে ৮ বছর’ এমন একটি নতুন বিল পাস করে ক্ষমতায় বহাল থাকতে পারে।

ট্রাম্প আগামীর পরিকল্পনা কথা ভেবে তার দেশে একটা ছাত্র সংগঠন করতে পারে। আর তাদের বৃহৎ পরিসরে কাজের ব্যাপারে বিস্তর জানতে বাংলাদেশের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন। উপস্থাপক ট্রাম্প চাইলে বাংলাদেশের কোনো টিভি চ্যানেলে কাজও নিতে পারেন। আর তার পাশাপাশি অনলাইনে দেশীয় পণ্য বিক্রি করার উদ্যোগ হাতে নিতে পারেন। চাইলে বাংলাদেশে স্থায়ী নাগরিকের জন্যও ট্রাম্প আবেদন করতে পারে। তবে নির্বাচন কমিশনে ভোটার আইডি না পেলে ডা. সাবরিনা আরিফের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন ট্রাম্প।