দুর্গতি

ঢাকা, রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ | ১১ আশ্বিন ১৪২৭

দুর্গতি

শফিক শাহরিয়ার ১:১৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৮, ২০২০

print
দুর্গতি

কোরবানির ঈদ এলেই ফ্রিজ কেনার হিড়িক পড়ে যায়। আজকাল গ্রামেও মানুষ হরহামেশাই ফ্রিজ কিনছেন। নতুন স্ত্রী স্বামীর বাড়িতে আসতে না আসতেই নানা রকম কায়দা করে। ফায়দা আদায় করতেও জানে। টিভি, ফ্রিজ, গ্যাসের চুলা ইত্যাদি ইত্যাদি না থাকলে স্ত্রী বাপের বাড়ি যাওয়ার রাস্তা মাপে। লাল্টু কিছুদিন আগে বিয়ে করেছে। স্ত্রীর আদেশ সে উপেক্ষা করতে পারছে না। টিভি, গ্যাসের চুলা বিয়ের আগেই কিনেছে। এখন শুধু ফ্রিজ কিনতে হবে। স্ত্রী তাকে সাফ সাফ বলেছে, তিন দিনের মধ্যে ফ্রিজ চাই। সে কারও ফ্রিজে কিছু রাখতে পারবে না। এতে তার সম্মান নিয়ে টানাটানি হবে।

লাল্টু একদিন শহরে ফ্রিজ কিনতে গেল। ব্যবসায়ীরা ঈদের আগে বিশেষ অফার দিয়ে থাকেন। লাল্টু নতুন অফারে ফ্রিজ কিনল। ডিসকাউন্ট বাদ দিয়ে ফ্রিজের দাম ২৪,৫০০ টাকা। এমনকি আরও ৪০০ টাকা অফার পেয়েছে। নেচে গেয়ে ফ্রিজ বাড়িতে নিয়ে এল। স্ত্রী আনন্দে আটখানা। পাড়ায় মিষ্টি বিতরণ করল। সবাইকে বলে, আমাদের ফ্রিজ সেরা ফ্রিজ। এমন ফ্রিজ পেতে কপাল লাগে।

ফ্রিজের যতœ-আত্তির কমতি নেই। কিন্তু ফ্রিজ কেনার আনন্দ তাদের কপালে খুব বেশিদিন সইল না। কয়েকদিন পর থেকেই ফ্রিজ নিয়ে বিপাকে পড়েছে লাল্টু। সে নাওয়া-খাওয়া ছেড়েই বন্ধুসহ একদিন ফ্রিজ নিয়ে শো-রুমে গেল।

ম্যানেজারকে বলল, ঈ?দের আগে বিশেষ অফার দেখে নতুন ফ্রিজ কিনলাম। ভেবেছিলাম অফারের জিনিস ভালো হয়। স্ত্রীও সারাক্ষণ বকবক করছে। আমার নাকি ভালো জিনিস কেনার মুরোদ নেই! এত টাকার ফ্রিজ কিনেও স্ত্রী প্রশংসা করে না। জানি না কপালে আর কী দুর্গতি আছে! সংসারের অতি প্রয়োজনীয় ফ্রিজটি নষ্ট হলে কিন্তু মহামুশকিল। ফ্রিজের দরজা ঠিকমতো বন্ধ হয় না। এখন উপায় কী?

ম্যানেজার বললেন, সাধারণত সিল ডিফেক্ট হলে দরজা ঠিকমতো বন্ধ হয় না। অনেক সময় ফ্রিজ খুব ভালো করে পরিষ্কার করার পর আবার ঠিকমতো দরজা লাগানো যায়। তারপরও যদি না হয়, তাহলে দরজা বদল করা দরকার। তবে ফ্রিজটি বেশি পুরনো হলে নতুন ফ্রিজ কেনাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। যাই হোক, আপনি নতুন কিনেছেন। ফ্রিজটি রেখে যান। চিন্তা নেই, সমাধান আছে। আমাদের টেকনিশিয়ানরা খুব ব্যস্ত আছেন। ফ্রিজটি মেরামত করে ঈদের আগে না দিতে পারলেও ঈদের পরে দিতে পারব। এতটুকু নিশ্চিত থাকেন।

ফেরার পথে বন্ধুটি বলল, সেদিন আমি এলে অফার ছাড়াই ফ্রিজ কিনে দিতাম। অফার মানে তুই বুঝিস? কোম্পানি ভালো জিনিসের তেমন অফার দেয় না। ভেজাল জিনিসের বেশি অফার দেয়। অফার দিলেও বেশি দাম ধরে যোগ-বিয়োগ করে আসল দাম ঠিকই রাখে। ক্ষতির হিসাব করে না।

লাল্টু বলল, শালা তুই যে বুদ্ধিমান সেটা এখন প্রমাণ করিস? কথাটা আরও আগে বললে কি আর এমন দুর্গতি হত!