আধুনিক আদম!

ঢাকা, সোমবার, ১০ আগস্ট ২০২০ | ২৫ শ্রাবণ ১৪২৭

আধুনিক আদম!

খালিল ইমতিয়াজ ৯:৫৬ পূর্বাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

print
আধুনিক আদম!

আমি আধুনিক আদম বলছি। আমি চোর হতে চাই! না, না, মিথ্যা না, সত্যি! আমি চোর হতে বাধ্য। কারণ পরে বলছি। আমি যদি চোর না হই, তাহলে আমি অসামাজিক, একঘরে, গোঁড়া হয়ে যাব এবং অন্যান্য বাঘা বাঘা সাধুদের দ্বারা নানা নেতিবাচক (তাদের মতে) বিশেষণে বিশেষায়িত হব। অতএব, আমি চোর হতে চাই।

আমি চোর না হলে যে, আমার হাওয়া (নামবাচক বিশেষ্য) কষ্ট পাবে। কারণ আমি হাওয়ার কাছে পরাজিত। আমি হাওয়ার ফল বক্ষণ করেছি। আমি হাওয়ার জন্য চুরি করি, নিজের জন্যও টুকটাক করি। তবে নিজের চাহিদা স্বল্প। আমি সিধ কেটে চুরি করি না। সেটা ‘প্রেসটিজ ইস্যু’। আমার চুরির প্রধান উৎসÑ ফাইলের ‘লাল ফিতা’ দীর্ঘায়িত করা, গোডাউনে দীর্ঘদিন মালামাল হেফাজত, তথ্যবিভ্রাট সৃষ্টি এবং পেশিশক্তি ইত্যাদি ইত্যাদি...। ফাইলে হাত দিলেই হাওয়া আর হাবিল-কাবিলের (সন্তান-সন্ততি) কথা মনে পড়ে যায়।

তখন কি আর চুরি না করে পারা যায়? আমার সম্পদ গুণোত্তর ধারায় বাড়ে। আমি ব্যবসা করি না, করাই। আমি সবকিছুর ওপরই স্বল্প জ্ঞান রাখি (আমলা)। অর্থাৎ আমি একজন ‘little learner, (A little learning is a dangerous thing)| ‘little learning’-এর মাধ্যমে প্রাপ্ত বিবেক দিয়ে আমি চুরি করি। আমার কী দোষ? আমি মোনাফেক। কারণ আমি আত্মস্বীকৃত চোর নই। আমার হাবিল-কাবিলদের সামনে আমি সাধু বনি। হাওয়ার সামনে অন্যান্য হাওয়ার ঘটনাসমূহ লুকাই। আমি জাহান্নামের সর্বনিম্ন স্তরে যেতে চাই।

আমি ইহজনমেই জাহান্নামের সার্টিফিকেট চাই এবং এজন্য আমি অন্য চোরদের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হই। সেই সঙ্গে দেশকে বারংবার চ্যাম্পিয়ন (দুর্নীতিতে) বানাতে চাই। কিন্তু কিছু মূর্খ (আমার মতে), বিবেকহীন (জাতির মতে), মৌলবাদী এবং নীতিহীন সন্নাসীদের (সুবিধাবাদী ধর্মীয় দলগুলোর মতে) কারণে ঠিকমতো পেরে উঠছি না। এখানে উল্লেখ্য, মৌলবাদ শব্দটার অর্থ ‘Oxford dictionary’ দুটি। প্রথমটির অর্থ অনেকেই জানেন না।

আমি দেশপ্রেমিক! কীভাবে? এভাবে যে, আমি জনগণের বিচ্ছিন্ন/বিক্ষিপ্ত অর্থ একীভূত করার চেষ্টা করি (শেয়ার বাজার)। কারণ আমি দেশের বিভিন্ন মূল্যবান সম্পদ চুরি করে অন্যান্য রাষ্ট্রে পাচারের চেষ্টা করি। এই ভেবে, এগুলো স্বদেশে সুরক্ষিত নয়। তাহলে আমি দেশপ্রেমিকই বটে! আমি সিমেন্টের সঙ্গে বালির পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে বেশি দিই। এই কারণে, বেঁচে যাওয়া সিমেন্ট দিয়ে দেশের আরও উন্নয়ন করা যাবে! আমি চালের আড়ৎদার। আমার দায়িত্ব দেশের মানুষের ‘ওছ’ টেস্ট করা। তাই আমি চালের সঙ্গে খুব চতুরভাবে সাদা ছোট ছোট পাথর মিশিয়ে দিই। আমার নাম আশরাফ (উল মাখলুকাত)। কিন্তু আমি রিপু নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। রিপু তাড়িত হয়ে মূল্যায়ন করি। যেহেতু রিপু নিয়ন্ত্রিত নই, সেহেতু ভয় পাই।