চোরের উপর বাটপারি

ঢাকা, বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০ | ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

চোরের উপর বাটপারি

রুহুল আমিন রাকিব ৭:০৬ অপরাহ্ণ, মে ১১, ২০২০

print
চোরের উপর বাটপারি

মফিজ ভাই ডিজিটাল চোর। চুরিবিদ্যায় নিত্য সংযোগ করে চলছেন নতুন নতুন আইডিয়া। এখন বিশ্বজুড়ে চলছে করোনা আতঙ্ক! বাংলাদেশেও ভয়াল থাবায় সবাই অস্থির। ঘরবন্দি মানুষ। সরকার গরিব দুঃখীদের জন্য নানা রকম ত্রাণের প্যাকেজ ঘোষণা করেছে। তবে গরিব দুঃখী দূরে থাকুক, ত্রাণ এলাকার পাতি নেতাদের কাছে আসতে না আসতেই শেষ। মফিজ ভাই জাতে চোর হলেও তালে ঠিক।




গরিব মানুষের জন্য মন কাঁদে! এলাকার অসহায় মানুষের কষ্ট সহ্য না করতে পেরে ঠিক করলেন লকডাউন ভেঙে চুরি করতে যাবে। চুরি করা আয় গরিবদের বিতরণ করবে। কথামতো রাতের আঁধারে চললেন উপজেলা চেয়ারম্যানের বাড়ি। গেটের দারোয়ানকে বললেন নেতার সঙ্গে জরুরি কথা আছে। ভেতরে যেতে হবে। সোজা চেয়ারম্যানের রুমে ঢুকে। সুটকেস, আলমারি হাতিয়ে নগদ কয়েক লাখ টাকা আর সোনার গহনা চুরি করে।

পায়ের শব্দ শুনে হঠাৎ চেয়ারম্যানের ঘুম ভেঙে যায়। চোর চোর বলে যেই না মুখ হা করে চিৎকার করতে যাবে অমনি মফিজ ভাই বলল, একদম চুপ! আমি করোনায় আক্রান্ত। বেশি লাফাবে তো তোমাকে জড়িয়ে ধরব।

করোনার কথা শুনে চেয়ারম্যান বলল, তোমার যা কিছু প্রয়োজন নিয়ে যাও তবু আমার কাছে এসো না। মফিজ ভাই মনের সুখে, টাকা আর গহনা নিয়ে চলে এলেন।

চেয়ারম্যান মনে মনে বলল, যাক বাবা জনগণের মেরে খাওয়া জিনিস নিয়ে গেলেও সমস্যা নেই। সামনে আরো সময় আছে। বেঁচে থাকলে কত শত চাল, তেল, টাকা, ত্রাণের নামে মেরে খাব। রুম থেকে চলে আসার সময় মফিজ ভাই চেয়ারম্যানকে বলল, চোরের উপর বাটপারি!