ছবি বিড়ম্বনা

ঢাকা, শনিবার, ৬ জুন ২০২০ | ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ছবি বিড়ম্বনা

জেলি ৭:২৬ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৭, ২০২০

print
ছবি বিড়ম্বনা

মন্টু ভাইয়ের নতুন চাকরি হয়েছে।

বেতন মোটা অংকের এই সুবাদে বিয়ে করে সুন্দরী একটা বউ জুটিয়ে ফেলেছে। কিন্তু বিয়ের পর থেকেই বউ ভীষণ বিরক্ত। কারণ যখন যা যা করছে ছবি তুলে রাখছে। নতুন ভাবি ভাবছে তার কপালটাই বোধহয় খারাপ। নয়ত এমন একটা ছেলেকে বিয়ে করল যে কিনা ফোনপাগল।

কিন্তু ভুলটা বেশি দিন থাকল না। ভাঙল খুব দ্রুত। বিয়ের কিছুদিনের মাথায় মন্টু ভাইয়ের শরীরটা খারাপ হল। ডাক্তার বলল হাইপ্রেসার আর তেমন কোনো প্রবলেম নেই। যা ওষুধ দিয়েছে ঠিকভাবে নিয়ম মেনে খেলে খুব দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে। ডাক্তারের কথামত নিয়ম মেনে ঠিকভাবেই ওষুধ খাচ্ছেন মন্টু ভাই কিন্তু ঘটনা অন্য দিকে। মন্টু ভাই ওষুধ খাচ্ছে ঠিকই কিন্তু তবুও সেই ট্যাবলেটগুলোর ছবি তুলে রাখছে।

কয়েক দিন এই ঘটনা খেয়াল করল নতুন ভাবি। তারপর জিজ্ঞেস করল, ছবি তোলার কারণ

মন্টু ভাই বলল, ছবি তুলে না রাখলে তার মনে হয়, একদিনে এক ট্যাবলেট বারবার খাচ্ছে এটা নিয়েই ভীষণ চিন্তা হয়। চিন্তা দূর করার জন্য এই পদ্ধতি ব্যবহার করা।

ভাবি বলল, তাহলে আমার ছবি কেন প্রতিদিন অফিস যাওয়ার সময় তোলেন
আসল কথা হচ্ছে যদি ভুলে যাই তোমাকে বিয়ে করছিলাম কিনা তুমি আমার বউ কিনা। এই চিন্তা দূর করার জন্যই ছবি তোলা। এই কথা শুনে ভাবির অজ্ঞান হওয়ার উপক্রম। নিজেকে সামলে নিয়ে বলল, অফিসেও নাকি কোনো কাজ করলে এমন করে ছবি তুলে মনে রাখেন!

ছবি তোলাই কাল হয়ে দাঁড়াল একদিন। বস ডাকল তার রুমে। অফিসের কাজ জরুরি ভিত্তিতে ঠিক করে ই-মেইল করতে বলল মন্টু ভাইকে।

মন্টু ভাই দ্রুত কাজ শেষে পেপারটা ই-মেইল করল কিন্তু দুর্ভাগ্যবশত পেপারের ছবি না পাঠিয়ে ঘুষ নেওয়ার সময় একটা ছবি তুলে রেখেছিল, যে ঘুষ নিয়েছিল কিনা সেটা মনে রাখার জন্য; সেই ছবি বসকে পাঠায়। ব্যস, ওদিকে বস এই ব্যসকে কেন্দ্র করে মন্টু মিয়াকে একটা চিঠি পাঠায়। মন্টু ভাই ভেবে নেয় প্রমোশন পেয়েছে। আনন্দে কয়েকশ’ ছবিও তোলে। চিঠি পড়ে দেখে প্রমোশন নয় বরং ডিমোশন হয়েছে। সতর্ক করে দিয়েছে পরবর্তী সময়ে এমন ঘটনা ঘটলে চাকরিচ্যুত করা হবে!