পিয়াজ ব্যবসায়ীর সাক্ষাৎকার

ঢাকা, শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯ | ৩ কার্তিক ১৪২৬

পিয়াজ ব্যবসায়ীর সাক্ষাৎকার

মুহা. তাজুল ইসলাম ৯:০০ পূর্বাহ্ণ, অক্টোবর ০৮, ২০১৯

print
পিয়াজ ব্যবসায়ীর সাক্ষাৎকার

বাজারে পিয়াজের পর্যাপ্ত মজুদ থাকলেও প্রকৃত মূল্যের তুলনায় দুই থেকে তিন গুণ দামে বিক্রি হচ্ছে। এই জন্য ব্যবসায়ীদের দায় কতটুকু?
আসলে পৃথিবীর মধ্যে আমরা এমন একটা জাতি, যারা ব্যবসাটা খুব ভালো বুঝি। যার ফলে অন্য দেশের তুলনায় দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছি। এখানে কারণে অকারণে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি পায়। যদি লাগাম টেনে না ধরা হয় তবে দুই গুণ বা তিন গুণ না, দুইশ’ তিনশ’ গুণ বাড়াতে আমরা কখনোই কার্পণ্য করি না।

পিয়াজের মূল্য বৃদ্ধিতে ভোক্তা সমাজ কতটুকু ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে?
ক্ষতির কিছু দেখছি না। এই পিয়াজের মূল্য বৃদ্ধির সুবাদে বিরোধী দল সরকারের সমালোচনার সুবিধা পাচ্ছে, টিভি চ্যানেলগুলো টক-শোর টপিক পাচ্ছে, ফেসবুকবাসী স্ট্যাটাস দিয়ে কমেন্ট লাইক পাচ্ছে। এছাড়া আপনার মতো নামসর্বস্ব সাংবাদিক আমার মতো একজন ব্যবসায়ীর সাক্ষাৎকার নেওয়ার সুযোগ পাচ্ছে, পত্রিকাগুলো সংবাদ ছাপাতে পারছে, বুদ্ধিজীবীরা ইস্যু পাচ্ছে আর টিসিবিসহ সরকারি বিভিন্ন সংস্থার দৌড়ঝাঁপ বাড়ছে। এভাবে বিভিন্ন পেশাজীবী উপকৃত হচ্ছে!

বিয়ের বাজারে পিয়াজ ব্যবসায়ীদের চাহিদা ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। বিষয়টা কীভাবে দেখছেন?
দেশে এক ইস্যু আসতে না আসতেই নতুন ইস্যুর উদ্রেক হয়, তাই এই ইস্যুকে ব্যবহার করে যে যার মতো ফায়দা তোলে। পিয়াজ ব্যবসা দেখিয়েই বিয়েটা করেছিলাম, যদিও মরিচ বা আলুর দাম বাড়লেই আমার বউ বলে ওঠে, আমাকে বিয়ে করা তার মস্ত ভুল ছিল। পাশের বাড়ির মরিচ বা আলু ভাবি নাকি অনেক ভালো আছে!

অনেক ব্যবসায়ী অধিক মুনাফার আশায় পিয়াজ বিক্রি না করে গুদামজাত করেছেন। কিন্তু সেগুলো পচে যাওয়ায় উল্টো ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এ সম্পর্কে আপনার বক্তব্য কী?
বিষয়টি দুঃখজনক। তারা ব্যবসার স্বার্থে তিন-চার গুণ বেশি লাভ করতে চেয়েছিলেন। তাদের এই প্রচেষ্টাকে আমাদের শ্রদ্ধা করা উচিত ছিল। সরকারের কাছে এদের পক্ষ থেকে ক্ষতিপূরণ দাবি করছি।

পিয়াজের ব্যাপক আমদানি হয়েছে; টিসিবি বাজারের তুলনায় অনেক কম মূল্যে বিক্রি শুরু করেছে। দাম আস্তে আস্তে কমে যাচ্ছে বলে কি আপনি চিন্তিত?
আমি মোটেও চিন্তিত না। মাত্র একমাসেই আমার মতো অনেক ব্যবসায়ী সারা বছরের টাকা আয় করে নিয়েছেন।
পিয়াজ নিয়ে তো অনেক হলো; রসুন, কাঁচামরিচ কিংবা গোল আলুর মূল্য কীভাবে বৃদ্ধি করা যায় সেটা নিয়ে এখন ভাবার সময় এসেছে। আপনিও সাক্ষাৎকারের নতুন বিষয় নিয়ে ভাবুন; তা না হলে চাকরি হারাবেন!