চোর বনাম গেরস্থ

ঢাকা, সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৬

চোর বনাম গেরস্থ

জেলী আক্তার ২:১৩ অপরাহ্ণ, জুলাই ০২, ২০১৯

print
চোর বনাম গেরস্থ

এক চোর বেশ কয়েকদিন ধরে একই বাড়িতে চুরি করছে। প্রথম দিন গাছের আম চুরি করেছিল। দ্বিতীয় দিন কলাবাগান থেকে কলা চুরি, তৃতীয় দিন নারিকেল। কিন্তু গেরস্থ কোনো উপায়ে চোর ধরতে পারছে না। কোনো না কোনোভাবে ফসকে যাচ্ছে। চোর এমন চালাক ছিল যে কলাবাগানে শব্দ করে আর নারিকেল বাগানে চুরি করে, আমবাগানে শব্দ করে লিচু বাগানে চুরি করে।

এভাবে নয় দিন চুরি হলো চোর ধরা পড়ল না। গেরস্থ চোরের চুরির অঙ্কটা বুঝে গেয়েছিল। গেরস্থ দশ দিনের মাথায় প্রত্যেকটা বাগানে লোক রাখল। ঘরের কোণে গোসলখানা, রান্না ঘর সব জায়গায়। নয় দিন চুরি করার ফলে চোরের এমন সাহস হয়ে গেছে যা কল্পনার বাইরে।

বাইরে চুরি ছেড়ে এবার প্রাচীর টপকে বাড়ির ভেতরে প্রবেশ করল। কিন্তু শুরুতেই ভুল করল গোসলখানায় শব্দ করে। চোর আস্তে আস্তে পা টিপে টিপে চলতে চলতে ঠিক গেরস্থের ঘরে ঢুকে পড়ল আর তখনই খপ করে দরজা বন্ধ করে টপ করে চোর ধরে ফেললো গেরস্থের লোকজন।

রাতারাতি মারধর ভালোই হলো। পরদিন সকালে গেরস্থ বলল, কী রে তোর এত সাহস, এক বাড়িতে দশ দিন চুরি করতে আসিস? ভয় নেই, ধরা পড়লে কী হাল হবে?

চোর বলল, এবারের মতো ছেড়ে দেন। চোরের দশ দিন গেরস্থের একদিন, কথাটা শুনেছিলাম তাই নয়দিন চুরি করেছি। ভেবেছি, দশ দিন চুরি করে তারপর আর করব না। তাহলে ধরাও পড়ব না।

চোরের কথা শুনে সবাই হেসে উঠল।