ধনবতী স্ত্রীর দরিদ্র স্বামী!

ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ | ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

ধনবতী স্ত্রীর দরিদ্র স্বামী!

রুবেল কান্তি নাথ ১০:৫১ পূর্বাহ্ণ, ডিসেম্বর ০৪, ২০১৮

print
ধনবতী স্ত্রীর দরিদ্র স্বামী!

আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থীরা তাদের নির্বাচনী হলফনামায় নিজেদের জনগণের চেয়েও খুব গরিব বলে উপস্থাপন করেছেন। কেউ তাদের হলফনামায় জানিয়েছেন, তিনি নিজে বসবাস করেন স্ত্রীর দান করা বাড়িতে। আবার কেউবা বলেছেন, সর্বদা চড়েন স্ত্রীর কাছ থেকে উপহার হিসেবে প্রাপ্ত দামি গাড়িতে!

সারা বিশ্বে ধনী হিসেবে সুপরিচিত এক ধনকুবেরের ভাষ্য, তার কোনো বাড়ি-গাড়ি, অর্থবিত্ত, টাকা-পয়সা, সহায়-সম্পত্তি নেই। হোমড়া-চোমড়া টাইপের এক প্রার্থী তো বলেই বসেছেন, তিনি মোবাইল, কম্পিউটার থেকে শুরু করে কোনো ইলেকট্রনিক্স সামগ্রীই ব্যবহার করেন না। ব্যবহার করবেনই বা কেন, কারণ তিনি তো আর মানুষ নন, ইতোমধ্যে এলিয়েনের কাতারে চলে গেছেন। বিজ্ঞানীরা ভিনগ্রহের প্রাণীদের নিয়ে গবেষণা না করে, এসব এলিয়েনদের নিয়ে গবেষণা চালিয়ে গেলে আশা করছি ভবিষ্যতে ভালো ফলই পাবেন।

অনেকে যেভাবে গরিব হিসেবে জনগণের সামনে নিজেদের উপস্থাপন করেছেন, সেটাকে এক প্রকার সঠিকই বলা যায়। কীভাবে?

কারণ এ সোনার বাংলাদেশটা তো কারও একার সম্পত্তি নয়, পুরোটাই জনগণের। তারা জনগণকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে কোনো মতে ক্ষমতার মসনদে বসতে পারলেই কেল্লাফতে। এরপর যাদের মাধ্যমেই গদিতে আরোহণ করা, তাদের খুব সুন্দর করে কাঁচকলা দেখানো। দুদিনেই জনগণকে লুটেপুটে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ!

আরেকটি ব্যাপার খুব ভালো করেই লক্ষ করা গেছে, নির্বাচন প্রার্থী স্বামীদের তুলনায় তাদের স্ত্রীরা প্রচুর ধন-সম্পদের মালিক। সাধারণ জনগণ বলে বসতেই পারেন, দেশে হয়তো এখন স্ত্রীতান্ত্রিক পরিবার প্রথা চলছে। আমপাবলিকদের মনে আরও একটা প্রশ্ন ঘুরপাক খেতেই থাকে...খেতেই থাকে। সেটা হলো, তাদের স্ত্রীরা যদি গৃহিণীই হন-তাহলে এত এত ধন-সম্পদের মালিক হলেন কীভাবে? প্রশ্নটার উত্তর আপনার জানা আছে কি!