মাল্টা চাষ করে স্বাবলম্বী সাঘাটার আমির

ঢাকা, সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ | ১২ আশ্বিন ১৪২৮

Khola Kagoj BD
Khule Dey Apnar chokh

মাল্টা চাষ করে স্বাবলম্বী সাঘাটার আমির

নুর হোসেন রেইন, সাঘাটা (গাইবান্ধা)
🕐 ৭:১৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ০৭, ২০২১

মাল্টা চাষ করে স্বাবলম্বী সাঘাটার আমির

মাল্টা চাষ করে স্বাবলম্বী হয়েছেন গাইবান্ধার সাঘাটার পুটিমারী গ্রামের কৃষক আমির হোসেন। মাত্র ৫ শতাংশ জমিতে ১৯৯০ সালে সবজি চাষ শুরু করেন, সেই থেকে তার পথ চলা। এক জমিতে এক সাথে ১০ প্রজাতির ফসল উৎপাদন করে জেলায় কৃষকদের কাছে মডেল হয়েছেন কৃষক আমির।

পরামর্শ নিতে প্রতিদিনিই কৃষকরা আসছেন তার বাড়িতে।

জানা গেছে, উপজেলার মুক্তিনগর ইউনিয়নের পুটিমারী গ্রামের মৃতঃ মোজাহার আলী বেপারীর ছেলে কৃষক আমীর হোসেন। ১৯৯০ সালে প্রথমে ৫ শতাংশ জমিতে ১০০টি পেঁপের চারা লাগান। ওই জমিতেই সাথী ফসল হিসেবে চাষ করেন আঁদা। ছয় মাসে আয় হয় ১৫ হাজার টাকা। সেই থেকে শুরু আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি আমির হোসেনকে।

এখন নিজের বসতবাড়ির চারপার্শ্বে বর্গাসহ মোট চার একর জমিতে বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ করেন তিনি। এসব জমিতে একই সাথে পেঁপে, আঁদা, মরিচ, মাল্টা, কমলাসহ বিভিন্ন ফসল চাষ করছেন এখন।

প্রতি বছর তার আয় হয় ১২ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা। একই সাথে একাধিক ফসল উৎপাদন করে সফলতা পাওয়ায় অন্যন্য কৃষকরাও এগিয়ে আসছেন এ পদ্ধিতে চাষাবাদ করতে।

আমির হোসেনের এ প্রক্রিয়ায় অনেক কৃষক সফলতা পাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন উপজেলা কৃষি অফিস।

কৃষি অফিস জানায়, তার এ উদ্যোগকে এগিয়ে নিতে সার্বিক সহযোগিতা করা হচ্ছে। একই জমিতে ১০টি ফসল চাষে সফলতা অর্জন করে জেলায় মডেল কৃষক হয়েছেন আমির হোসেন। স্বীকৃতি সরুপ ২০১৭ সালে বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকসহ বিভিন্ন সময় পেয়েছেন পুরস্কার ও সম্মাননা।

কৃষক আমীর হোসেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এক ইঞ্চি জায়গা ফেলে রাখবেন না। তাঁর নির্দেশ মতে অল্প জমিতে দশটি ফসল আবাদ করছি, এতে আমি লাভবান হচ্ছি।

উপজেলা কৃষি অফিসার সাদেকুজ্জামান জানান, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে কৃষক আমির হোসেনকে নিয়মিত পরামর্শ প্রদান করা হচ্ছে।

 
Electronic Paper