ভাইবোনের মালটা চাষে উৎসাহ

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০ | ১৪ কার্তিক ১৪২৭

ভাইবোনের মালটা চাষে উৎসাহ

আকতার হোসেন বকুল, পাঁচবিবি ৯:৩৬ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০

print
ভাইবোনের মালটা চাষে উৎসাহ

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন জায়গায় জনপ্রিয় হয়ে উঠছে মালটা চাষ। অন্য অনেকের দেখাদেখি জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার সীমান্তের চেঁচড়া জামে মসজিদের পতিত তিন বিঘা জমিতে মালটা চাষ করেছেন ভাইবোন মিলে। তাদের এমন উদ্যোগ দেখে এলাকার সবাই খুশি। এখন অনেকের মধ্যেই মালটা চাষে আগ্রহ জাগছে।

জানা গেছে, উপজেলা কৃষি অফিস ও এলাকাবাসী তাদের বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করছেন। উৎসাহও জোগাচ্ছেন। তাদের লাগানো গাছে গাছে ব্যাপকহারে মালটা ধরেছে। এতে লাভের আশায় স্বপ্ন দেখছেন ওই ভাইবোন। চেচঁড়া গ্রামের মৃত ময়েন উদ্দিনের সন্তান আলিম ও আলেমন। সীমান্ত এলাকায় বসবাস করলেও তারা চোরাচালানের সঙ্গে না জড়িয়ে মালটা চাষে আগ্রহী হয়ে ওঠেন।

এ বিষয়ে আলিম খোলা কাগজকে বলেন, উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শে আমরা ভাইবোন মিলে মালটা চাষ শুরু করি। কৃষি অফিস কোনো আর্থিক সহযোগিতা না করলেও যথেষ্ট পরার্মশ দিয়েছে। তবে অর্থনৈতিকভাবে কিছুটা সহযোগিতা পেলে মালটা চাষের পরিধি আরও বাড়ত। আলিম আরও বলেন, আমাদের গ্রামের মসজিদের এ জায়গায় অন্য ফসল আগে তেমন হতো না।

ঝোঁপঝাড়ে ভরে থাকত। মসজিদ কমিটির কাছ থেকে আড়াই লাখ টাকায় ১০ বছরের জন্য লিজ নিয়ে মালটা চাষ শুরু করি। জমি লিজ, বাগান পরিচর্যা, সার-কীটনাশক ও শ্রমিক খরচ বাবদ এ পর্যন্ত প্রায় ৭ লাখ টাকা খরচ হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ লুৎফর রহমান বলেন, উপজেলায় মোট ৫০-৬০টি মালটার বাগান আছে। আমরা সব ধরনের সহযোগিতা করছি। পরামর্শ দিচ্ছি। চাষিদের মালটা চাষে উদ্বুদ্ধ করছি।