বাউফলে বেড়েছে সবজি চাষ

ঢাকা, রবিবার, ৭ জুন ২০২০ | ২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

বাউফলে বেড়েছে সবজি চাষ

ইউসুফ আলম সেন্টু, বাউফল (পটুয়াখালী) ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ, মে ১০, ২০২০

print
বাউফলে বেড়েছে সবজি চাষ

পটুয়াখালীর বাউফলে করোনা মোকাবেলায় কৃষি চর্চা তথা সবজি চাষ বেড়েছে। উপজেলার পেশাজীবী ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকের পাশাপাশি চাকরিজীবী, শ্রমিক, সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীরা বাড়ির আঙ্গিনায়, ছাদে ও পতিত জমিতে বিভিন্ন ধরনের সবজি চাষ ব্যস্ত।

সারা দেশের ন্যায় জেলার বাউফলে গৃহমুখী ছিল প্রায় প্রতিটি পরিবার। ছুটিকালীন সময়ে কৃষি নিয়ে ব্যস্তছিল অধিকাংশ পরিবার। 

জানা গেছে, উপজেলার ১৫টি ইউনিয়ন ও পৌর শহরের প্রায় পরিবার বাড়ির আঙ্গিনায় গ্রীস্মকালীন সবজি চাষ করেন। করোনা কৃষি নিয়ে ব্যস্ত রফিক, জব্বার, রহিমা বলেন, কলেজ, স্কুল ও মাদ্রাসা বন্ধ। তাই বাড়িতে সবজি বাগান করি।

উপ-সহকারী উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা কৃষি অফিস বাউফল থেকে আনছার উদ্দিন মোল্লা জানান, প্রধানমন্ত্রী নিদের্শনা বসত বাড়িতে সবজি চাষ উদ্বুদ্ধ হচ্ছে। প্রণোদনা হিসেব গ্রীস্মকালীন সবজি চারা বিতরণ এবং পরামর্শ অব্যাহত রয়েছে। করোনা মোকাবেলা সবজি চাষে উদ্বুদ্ধ প্রণোদনা হিসেবে ৫শ পরিবারে চারা বীজ বিতরণ করা হবে।

স্পিড ট্রাস্ট এনিমেটর সাইফুল ইসলাম জানান, বাউফল উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নে কৃষকের সমবায় দল রয়েছে। এএলআরডি সহযোগিতায় স্পিড ট্রাস্ট এ ভূমি স্বত্ব ও কৃষি চর্চা ইস্যু নিয়ে কাজ করেছে। ভূমি অধিকার সংরক্ষণ এবং কৃষি চর্চা কর্মসূচি নিয়মিত সভা, প্রশিক্ষণের মাধ্যমে সবজি চাষে উদ্বুদ্ধ হচ্ছে।

আলাপচারিতায় জানা গেছে, মার্চ শেষ সপ্তাহ থেকে চলমান মে পর্যন্ত দেড় মাস করোনা সাধারণ ছুটি ছিল। এ সময় অনেকে রাজধানী ঢাকাসহ অন্য শহর থেকে গ্রামের বাড়িতে সময় কাটান। বাংলা মাস ছিল বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠ মাস। এসময় গ্রীস্মকালীন ফসল ঢেড়স, বরবটি, চিঙিগা করোলা, পাটশাক, কলমিশাক এবং পাট শাক রোপনের উপযোগী সময়। অধিকাংশ পরিবার এ গ্রীস্মকালীন সবজি বীজ রোপন করেন। উপজেলার চন্দ্রদ্বীপ ইউনিয়নসহ গ্রামের বেশির ভাগ বাড়িতে উদ্যোগটি দেখা গেছে।