শীত যাওয়ার আগেই আমের মুকুল চিন্তিত চাষিরা

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২ জুন ২০২০ | ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

শীত যাওয়ার আগেই আমের মুকুল চিন্তিত চাষিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক ৪:১৭ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২৩, ২০২০

print
শীত যাওয়ার আগেই আমের মুকুল চিন্তিত চাষিরা

আমের মুকুল ঘন কুয়াশায় ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে, ফলে শঙ্কা রয়েছে ফলন কমে যাওয়ার।চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকেই বারোমাসি ও দেশি জাতের আম গাছে এই মুকুল দেখা দেয়। অবশ্য চাষিদের আশা, আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে আর বড় প্রাকৃতিক দুর্যোগ না ঘটলে এবার আমের বাম্পার ফলন হবে।সারাবাংলা

 

আমচাষি ও বাগান মালিকরা জানান, রাজশাহী বিভিন্ন এলাকা জুড়ে শীতের তীব্রতা বিরাজ করলেও আগাম জাতের সব আম গাছে মুকুল আসতে শুরু করেছে। জেলায় আম বাগান রয়েছে ১৬ হাজার ৫০১ হেক্টর জমিতে। পৌষের মাঝামাঝিতেই গাছে মুকুল আসার লক্ষণ দেখা গিয়েছিল। মাঘের শুরুতেই মুকুল বের হয়েছে, এ কারণে বাগানে পরিচর্যা বাড়িয়েছেন তারা।

বাংলাদেশে ২৫০ জাতের আমের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ফজলি, গোপালভোগ, মোহনভোগ, ন্যাংড়া, ক্ষিরসাপাত, হিমসাগর, কৃষাণভোগ, মল্লিকা, লক্ষণা, আম্রপলি, দুধসর, দুধকলম, বিন্দাবনী, আরজান, রাণী পসন, মিশ্রীদানা, সিঁন্দুরী, আশ্বিনাসহ নানা প্রকার গুটি আম।

রাজশাহী ফল গবেষণা কেন্দ্র জানায়, ডিসেম্বরের শেষ দিক থেকে জানুয়ারির মাঝামাঝি সময় অবধি বারোমাসি বা লোকাল জাতের আম গাছে মুকুল আসা শুরু হয়। তবে এবার জানুয়ারির শুরুতেই মুকুল আসা শুরু হয়েছে। শীতের তীব্রতা, তাপমাত্রা ও ঘন কুয়াশার কারণে গাছের মুকুল নষ্ট হতে পারে।