আমনে পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯ | ২৮ কার্তিক ১৪২৬

আমনে পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

ইকবাল হোসেন সুমন, নোয়াখালী ৫:৩৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ০৯, ২০১৯

print
আমনে পোকার আক্রমণে দিশেহারা কৃষক

নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় রোপা আমন ক্ষেতে প্রথম বারের মত দেখা দিয়েছে বিপিএইচ বা ব্রাউন প্লেন্ট হোপার পোকার আক্রমণ। এক সপ্তাহের মধ্যে মহামারী আকার ধারন করেছে এ পোকার আক্রমণ। কৃষকদের সচেতন করতে করা হচ্ছে মাইকিং। কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শমত ঔষধ ব্যবহার করেও কোন ফল না পাওয়া যাচ্ছে বলে অভিযোগ কৃষকদের। এদিকে ইতোমধ্যে ছুটি বাতিল করা হয়েছে উপজেলার সব কৃষি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, এবছর সুবর্ণচর উপজেলায় ৩৮ হাজার হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়েছে রোপা আমন। এ সুবর্ণচর উপজেলায় রোপা আমন ক্ষেতে হঠাৎ করে দেখা দিয়েছে বিপিএইচ বা ব্রাউন প্লেন্ট হোপার পোকার আক্রমণ। এখানকার কৃষক পূর্বে এমন পোকার সঙ্গে পরিচিত ছিলো না। এক সপ্তাহ আগে থেকে এ পোকার আক্রমণ শুরু হয়।

এই পোকার আক্রমণে নষ্ট হয়েছে শতাধিক হেক্টর জমির ধান। এই পোকা আক্রমণ শুরু করার ১২-১৮ ঘণ্টার মধ্যে নষ্ট হয়ে যায় ধান, আর মরে যায় ধান গাছ।

বেশি আক্রমণ দেখা দিয়েছে উপজেলার চর জুবলী ও চর জব্বর ইউনিয়নে। পোকার আক্রমণ থেকে ধান ক্ষেত রক্ষা করার জন্য মাইকিং করা হয় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোতে। সব পর্যায়ের কৃষি কর্মকতারা পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন কৃষকদের। কৃষি কর্মকর্তাদের পরামর্শমত ঔষধ ব্যবহারে কোন ফল না পাওয়ার অভিযোগ কৃষকদের।

নোয়াখালী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আবুল হোসেন জানান, গত কয়েক আগে দিনের বেলায় মেঘলা আবহাওয়া, স্যাঁতস্যাঁতে পরিস্থিতি এবং রাতে অধিক তাপমাত্রার জন্য এ পোকার আক্রমন দেখা দেয়। তবে লাইট ট্র্যাপ পদ্ধতিতে ভালোভাবে দেখা হয়নি বলে পূর্ব থেকে কৃষকদের সতর্ক করা যায়নি।