পাটের দামে স্বস্তি

ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬

পাটের দামে স্বস্তি

এম কামরুল ইসলাম, সোনারগাঁ ৪:০০ অপরাহ্ণ, আগস্ট ২১, ২০১৯

print
পাটের দামে স্বস্তি

গেল কয়েক বছর ধরে লোকসান গুণতে গুণতে সোনালী আঁশ খ্যাত পাট নিয়ে হতাশ হয়ে পড়েছিলেন কৃষকরা। ফলে প্রতিবছরই লোকসান গুণতে হতো চাষিদের। আর এতে প্রতিবছরই কমছে পাটের চাষ। কিন্তু এ বছর ফলন ও দাম দুটোই ভালো হওয়ায় কৃষকের মলিন মুখে হাসি ফুটেছে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি পাট উৎপাদন হয়েছে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলায়।

এবছর পাটের চাষ কম হলেও দামে স্বস্তি পেয়েছেন চাষিরা। ফলে তাদের মুখে ফুটেছে সোনালি হাসির ঝিলিক। তবে ভালো দাম এবং কৃষি বিভাগ থেকে সার্বিক সুযোগ-সুবিধা পেলে আগামীতে পাটের চাষ আরও বৃদ্ধি পাবে বলে জানিয়েছেন চাষিরা।

উপজেলার দরিকান্দি গ্রামের সামসুল বেপারী বলেন, ‘গত ২০-২২ যাবত আড়াই বিঘা জমিতে পাটের আবাদ করে আসছি। এ এলাকায় আমিই প্রথম রুপগঞ্জ থেকে বীজ এনে পাটের চাষ শুরু করি।

জমির মালিক কট এর টাকা পরিশোধ না করায় আমি জমিতে এখনো চাষ করতেছি। এতে সব মিলিয়ে বিঘায় প্রায় ৬-৭ হাজার টাকা খরচ হতো। সে তুলনায় ন্যায্য দাম পাইনি। তবুও জমি ফেলে রাখতে চাই না বলে পাট চাষ করি। এ বছর ফলন ভালো হয়েছে দামও একটু ভালো। এ পর্যন্ত আমি ৬ মন পাট এক হাজার ৮০০ টাকা দরে বিক্রি করেছি।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মনিরা আক্তার বলেন, ‘এবছর নতুন উদ্ভাবিত রবি-১ জাতের পাটের বীজ উপজেলার ১০ জন কৃষকের মাঝে দেওয়া হয়েছে। এ জাতের পাট চাষে ২০-৩০ শতাংশ উৎপাদন বৃদ্ধি পাবে। বাজারে পাটের দাম ভালো। আশা করি আগামী বছর কৃষকরা পাট চাষে উদ্বুদ্ধ হবে।