বুধবার, ২২ নভেম্বর, ২০১৭
আমাদের উন্নতি কেউ চায় না, আমরাও না
খোলা কাগজ ডেস্ক
Published : Sunday, 10 September, 2017 at 11:57 AM
আমাদের উন্নতি কেউ চায় না, আমরাও না
মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে যে গণহত্যা নির্যাতন চলছে তা আমাদের কম বেশী সকলেরেই জানা। তারা আমাদেরই মতো মানুষ, আমাদেরই ভাই মুসলিম। বাংলাদেশের মতো জনবহুল দরিদ্র দেশের পক্ষে যা যা করা সম্ভব আমরা তার চেয়ে বেশীই করছি এবং করবো ইনশাল্লাহ। কিন্তু আমরা কতটুকো করবো ? গত বছরের অক্টোবরের আগ পর্যন্ত আমাদের ভুখণ্ডে ৫ লাখ রোহিঙ্গা ছিলো। সেসময় আসে আরো প্রায় ৭৮ হাজার। ইতোমধ্যে যাদের প্রায় ৫৫ হাজার বাংলাদেশের পাসপোর্টধারি। এ দফায় এখন পর্যন্ত এসেছে প্রায় সাড়ে তিন লাখ মানুষ। বোঝা যাচ্ছে আমরা আমাদের ক্ষমতার চেয়ে বেশী করছি। আমি আমার জীবনে এই একটা ইশ্যু দেখলাম যেখানে জনগন ও সরকার একমত হয়েছে যে রোহিঙ্গাদের বাঁচাতে হবে। সব কিছু সরকারের ওপর চাপিয়ে দিলে হবে না। রাষ্ট্র বলেন আর সরকার। সব কিন্তু জনগণকে নিয়েই। আর আমরা জনগণ কি করছি? সারা পৃথিবীতে যত নির্যাতনের ছবি আছে তার সবই রোহিঙ্গা বলে চালিয়ে দিচ্ছি? এতে কি হচ্ছে? সেদিন দেখলাম মানুষখেকোদের ছবিও রোহিঙ্গা নির্যতন বলে পোস্ট দেয়া হচ্ছে । এই শ্রেণীর মানুষ আসলে কি চায়? আরেক দেশের ক্যাচালে আমরা যুদ্ধে জড়াবো নাকি? আশ্চর্য!!! রোহিঙ্গারা এদেশে এসে কি করে সে প্রসঙ্গে গেলাম না। এখন তাদের দুঃসময়। আমরা তাদের সাহায্য করতে পারি কিন্তু অন্য দেশের বোঝা মাথায় নিতে পারি না। সবার আগে আমি, আমার পরিবার, আমার ঢাকা, আমার বাংলাদেশ। এর চেয়ে বড় কোন সত্যি নেই। রোহিঙ্গাদের কি হবে এটা সারা বিশ্বের কর্তা ব্যক্তিরা বুঝবেন। আমাদের অহেতুক উত্তেজনা তৈরি করে এমন ছবি পোস্ট করা ঠিক হবে না। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে অস্থিরতা ছড়ানোর কোন মানে নেই। আমার এই পোস্ট দেখে কেউ আমাকে গালিও দিতে পারেন । কিছু মনে করবো না। এদেশটা আমার, আমাদের। এদেশের শান্তির জন্য শুধু রাখাইন রাজ্য কেন গোটা মিয়ানমার ধুলিসাৎ হয়ে গেলো আমার কিছু করার নেই। আমি চাই আমার চট্টগ্রাম আগে বাঁচুক। আমার বাংলাদেশ বাঁচুক। যাদের এক ধমকে সব ঠিক হয়ে যেতে পারে কই তারা তো কিছু বলছে না। শালার আগের থেকেই ভারত পাকিস্থানের ক্যাচালে আছি এখন নতুন করে মিয়ানমার। আমাদের উন্নতি কেউ চায় না, আমরাও না.............

রাজীব আহমেদের ফেসবুক থেকে নেয়া



সর্বশেষ সংবাদ
আরো খবর ⇒
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদক ও প্রকাশক : মো: আহসান হাবীব
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত খোলাকাগজ ২০১৬
সম্পাদকীয়, বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয়: বসতি হরাইজন এ্যাপার্টমেন্ট নং ১৮/বি, হাউজ-২১, রোড-১৭, বনানী বাণিজ্যিক এলাকা, ঢাকা-১২১৩।
ফোন : +৮৮-০২-৯৮২২০২১, ৯৮২২০২৯, ৯৮২২০৩২, ৯৮২২০৩৬, ৯৮২২০৩৭, ফ্যাক্স: ৯৮২১১৯৩, ই-মেইল : kholakagojnews@gmail.com
Developed & Maintenance by i2soft
var _Hasync= _Hasync|| []; _Hasync.push(['Histats.start', '1,3452539,4,6,200,40,00010101']); _Hasync.push(['Histats.fasi', '1']); _Hasync.push(['Histats.track_hits', '']); (function() { var hs = document.createElement('script'); hs.type = 'text/javascript'; hs.async = true; hs.src = ('//s10.histats.com/js15_as.js'); (document.getElementsByTagName('head')[0] || document.getElementsByTagName('body')[0]).appendChild(hs); })();